icon

এম এন লারমার উক্তি সমগ্র

Jumjournal

Last updated Oct 4th, 2020 icon 963

জুম্ম জাতির মহান নেতা মানবেন্দ্র নারায়ণ লারমার মুখনিঃসৃত উক্তিগুলি আমাদের চলার পথে পাথেয় হয়ে উঠুক।

যে যত আদর্শবান, সে তত ক্ষমাশীল, একজন বিপ্লবী ত্যাগী, সাহসী ও দূরদর্শী হতে পারে।

– এম এন লারমা

ক্ষমা গুণ, শিক্ষা গ্রহণের গুণ, পরিবর্তিত হওয়ার গুণ – এই তিন গুণের অধিকারী না হলে প্রকৃত বিপ্লবী হওয়া যায় না।

– এম এন লারমা

বাংলাদেশের কোটি কোটি জনগণের সঙ্গে আমরা জড়িত। সবদিক দিয়েই আমরা একসঙ্গে বাস করছি। কিন্তু আমি একজন চাকমা, আমার বাপ, চৌদ্দ পুরুষ কেউ বলেন নাই আমি বাঙালি……

– গণপরিষদে এম এন লারমা

আমাদের মা-বোনের কথা এখানে (সংবিধান) নেই। নারীর যে অধিকার সেটা সম্পূর্ণ উপেক্ষিত, নারীকে যদি অধিকার দিতে হয় তাহলে পুরুষ যে অধিকার ভোগ করে সে অধিকার নারীকেও দিতে হবে। কারণ তারাও সমাজের অর্ধেক অংশ……

– গণপরিষদে এম এন লারমা

আমি বলছি আজকে যারা রাস্তায় রিক্সা চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করে চলেছেন, তাদের কথা এই সংবিধানে লেখা হয়নি। ………মাননীয় স্পীকার সাহেব, আজকে যারা কল-কারখানায় চাকা ঘুরাচ্ছেন, যাদের রক্ত চুইয়ে আমাদের কাপড়, কাগজ তৈরি হচ্ছে, সেই লক্ষ লক্ষ মেহনতি মানুষের কথা এখানে (সংবিধান) নেই।

– গণপরিষদে এম এন লারমা

আমি একজন কৃষকের ছেলে। কৃষকের ছেলে হয়ে কৃষকের কথাই বলতে চাই।

– এম এন লারমা (জুন, ১৯৭২)

এই সংবিধানে আমরা আমাদের অধিকার থেকে বঞ্চিত। আমরা বঞ্চিত মানব। আমাদের অধিকার হরণ করা হয়েছে।

– এম এন লারমা (অক্টোবর, ১৯৭২)

যারা মরতে জানে পৃথিবীতে তারা অজেয়। যে জাতি বেঁচে থাকার জন্য সংগ্রাম করতে জানে না, পৃথিবীতে তাদের বেঁচে থাকার কোন অধিকার থাকতে পারে না।

– এম এন লারমা


M N Larma
নদীর ধারে এম এন লারমা, ছবি: এম এন লারমা মেমোরিয়েল ফাউন্ডেশন
M N Larma
এম এন লারমা, ছবি: স্মারক গ্রন্থ, এম এন লারমা
M N Larma
১৯৭৩ সালে লংগদুর বনভান্তের বিহারে কঠিন চীবর দানোৎসবে তৎকালীন মহিলা এমপি সুদীপ্তা দেওয়ানসহ মানবেন্দ্র নারায়ণ লারমা, ছবি: এম এন লারমা মেমোরিয়েল ফাউন্ডেশন

তথ্যসূত্র: 

স্মারক গ্রন্থ, মানবেন্দ্র নারায়ণ লারমার জীবন ও সংগ্রাম; এপ্রিল ২০১৬।

শ্রদ্ধাঞ্জলি, মানবেন্দ্র নারায়ণ লারমা; মানবেন্দ্র নারায়ণ লারমা’র ২৪তম মৃত্যুবার্ষিকী পালন জাতীয় কমিটি।

জুমজার্নালে প্রকাশিত লেখাসমূহে তথ্যমূলক ভুল-ভ্রান্তি থেকে যেতে পারে অথবা যেকোন লেখার সাথে আপনার ভিন্নমত থাকতে পারে। আপনার মতামত এবং সঠিক তথ্য দিয়ে আপনিও লিখুন অথবা লেখা পাঠান। লেখা পাঠাতে কিংবা যেকোন ধরনের প্রয়োজনে যোগাযোগ করুন - jumjournal@gmail.com এই ঠিকানায়।

আরও কিছু লেখা

Jumjournal

Administrator

Follow Jumjournal

Leave a Reply