icon

সমস্যার সমাধান অ্যাপসে- রাসেল দেওয়ান

Jumjournal

Last updated Jan 27th, 2020 icon 294

বিজ্ঞান আমাদের জীবনকে করেছে সহজ, সুন্দর ও আনন্দময়। এই বিজ্ঞানের অতিসাম্প্রতিক বিস্ময় হচ্ছে স্মার্টফোন বা মোবাইল ফোন। আমাদের প্রতিদিনের জীবনে স্মার্টফোন একটি অপরিহার্য অংশ হিসেবে জায়গা করে নিয়েছে।

সূর্যোদয় থেকে সূর্যাস্ত এটি ছাড়া জীবন চলেই না। কল করা, প্রিয় মূহুর্তের ছবি তোলা, ক্যালকুলেটরে হিসাব, অ্যালার্ম ঘড়ি, গান শোনা ও ভিডিও দেখা, ইন্টারনেট ব্রাউজিংসহ অসংখ্য কাজ করি আমরা স্মার্টফোনের মাধ্যমে।

স্মার্টফোনে আমরা মূলত কাজ করি বিভিন্ন অ্যাপসের মাধ্যমে। আজ এমনি কিছু অ্যাপস নিয়ে আলোচনা করব যা হয়ত আপনি অনেক আগে থেকেই জানেন, কিন্তু সেগুলোর বিস্তারিত জানেন না। চলুন শুরু করি।

১. গুগল

গুগলকে চেনে না এমন খুব কম মানুষ আছে। ইন্টারনেটে রয়েছে বিশাল তথ্যের ভান্ডার। তা এতই বিশাল যে আমরা কল্পনা ও করতে পারবো না। এই তথ্য সমুদ্র থেকে নিজের কাঙ্খিত তথ্য খুঁজে পেতে গুগল আমাদের সাহায্য করে। আমি বা আপনি যা জানি না তা গুগল জানে। এটি একটি সার্চ ইঞ্জিন। কাঙ্খিত তথ্য ব্যবহারকারীকে খুঁজে দেয়া এর প্রধান কাজ। এর একটি বিশেষ ফিচার হচ্ছে ছবি দিয়ে সার্চ করার সুবিধা। আপনার কাছে হযত এমন কোন ছবি আছে যা সম্পর্কে আপনি আরো বিস্তারিত জানতে চান। গুগলে ঐ ছবি আপলোড দিন, গুগল ঐ ছবি সম্পর্কে যত তথ্য তার তথ্য ভান্ডারে আছে সব আপনার সামনে পর্যায় ক্রমে উপস্থাপন করবে। যাদের গুগলে একাউন্ট আছে তাদের সার্চ হিস্টোরি স্বয়ংক্রিয়ভাবে সংরক্ষণ হয়ে থাকে যাতে ভবিষ্যতে প্রয়োজন হলে তা আবার ব্যবহার করতে পারেন। এটি সব অ্যান্ড্রয়েড ফোনে ডিফল্ট হিসেবে দেয়া থাকে।

২. ইউটিউব

এটি ও সবার পরিচিত। এটি হচ্ছে একটি ভিডিও শেয়ারিং প্লাটফর্ম। এখানে রাজনীতি, অর্থনীতি, খেলাধুলা, কৃষি, শিক্ষা, চিকিৎসা, ভ্রমনসহ বিভিন্ন ধরনের ভিডিও পাওয়া যায়। এটি শিক্ষার্থীদের জন্য অপরিহার্য।ধরুন আপনি হয়ত ভালো গান করেন। কিন্তু তা প্রকাশ করার সুযোগ নেই। আপনার গান ভিডিও করে ইউটিউবে আপলোড দিন, পুরো পৃথিবীর যে কেউ সেই গান দেখতে পারবে। দর্শক জানাতে পারবে তার মতামত। নিজেকে পুরো পৃথিবীর সামনে প্রকাশ করার সুযোগ করে দিয়েছে ইউটিউব। সুযোগ করে দিয়েছে অজানাকে জানার। ইউটিউবে একাউন্ট খুলে পছন্দের ভিডিও গুলো নিয়ে তৈরি করতে পারেন প্লেলিস্ট। এই প্লেলিস্ট শেয়ার করতে পারেন অন্যদের সাথে।

৩. গুগল ফটোস

অনেকেই বলেন যে ‘আমার ফোন পানিতে পরে নষ্ট হয়ে গেছে, গুরুত্বপূর্ণ সব ছবি নষ্ট হয়ে গেলো। ফোন চুরি হয়েছে, প্রিয় ভিডিও আর ফেরত পাওয়া যাবে না। মেমোরি ফরম্যাট হয়েছে, সব ছবি ও ভিডিও শেষ।‘ আর ছবি নিয়ে চিন্তা করার কোন দরকার নেই। গুগল ফটোস দিচ্ছে সীমাহীন ছবি ও ভিডিও অনলাইনে সংরক্ষণ করার সুযোগ। আপনি যত ইচ্ছা ছবি ও ভিডিও রাখুন আপনার গুগল ফটোস একাউন্টে বিনামূল্যে।

৪. গুগল ড্রাইভ ও ওয়ান ড্রাইভ

আমাদের মোবাইলে আমরা বিভিন্ন ধরনের ডিজিটাল ফাইল সংরক্ষণ করি। যেমন অডিও, ভিডিও, ইবুক অ্যাপস ইত্যাদি। এগুলো আমাদের ফোনের অনেক জায়গা দখল করে থাকে। আবার চুরি, পানিতে নষ্ট, ফোন ভেঙ্গে যাওয়া ইত্যাদি কারণে এসব ফাইল হারানোর ভয় থাকে। গুগল ড্রাইভ দিচ্ছে ১৫ জিবি এবং ওয়ান ড্রাইভ দিচ্ছে ৫ জিবি ফ্রি ক্লাউড স্টোরেজ। এখানে আপনার প্রয়োজনীয় ফাইল সংরক্ষণ করতে পারেন। আর থাকবে না কোন ফাইল হারানোর ভয়। এছাড়া ও ড্রপবক্স, বক্স, মিডিয়া ফায়ার, ইয়ানডেক্স সহ আরো অনেক ফ্রি ক্লাউড স্টোরেজ রয়েছে।

৫. গুগল কন্ট্যাকত

অনেকেই বলেন যে মোবাইলটা হারিয়ে গেছে তাই নতুন ফোনে পুরনো আর কোন নাম্বার নেই। আরো বিভিন্ন কারনে আমরা ফোনে সেভ করা প্রিয়জনের ফোন নাম্বার হারিয়ে ফেলি। এই সমস্যার সমাধান করতে ব্যাবহার করুন গুগল কন্ট্যাকত।আপনার গুগল কন্ট্যাকত একাউন্টে অনলাইনে সংরক্ষণ করুন সব নাম্বার বিনামূল্যে। ফোন হারালেও নতুন ফোনে চলে আসবে পুরনো সব নাম্বার সিনক্রোনাইজ করার মাধ্যমে।

৬. উইকিপিডিয়া

এটি হচ্ছে অনলাইনে সবচেয়ে বড় বিশ্বকোষ। ব্যক্তি, বস্তু বা স্থান সম্পর্কে বিস্তারিত জানা যাবে এখানে। ফ্রি একাউন্ট খুলে সেভ করে রাখতে পারেন আপনার প্রিয় আর্টিকেল গুলো।

৭. উইকিহাউ

কোন কিছু কিভাবে করতে হয় তা সুন্দর করে দেয়া আছে এখানে। আপনি কিভাবে ফেসবুক ব্যবহার করবেন, কিভাবে ইমেইল ব্যবহার করবেন, কিভাবে আপনার ইংরেজি ভাষায় দক্ষতা অর্জন করবেন, কিভাবে পড়াশোনায় আরো ভালো করবেন এমন অনেক দরকারি তথ্য পাবেন এইখানে।

৮. মাইক্রোসফট ওয়ান নোট

একসময় প্রতিদিনের উল্লেখযোগ্য ঘটনা, কোন ভবিষ্যত পরিকল্পনা, কোন দরকারি তথ্য ইত্যাদি আমরা ডায়েরিতে লিখে রাখি। এখন ডিজিটাল যুগে ডায়েরি লেখার মতো লোক খুব কম পাওয়া যায়। আপনার যদি ডায়েরি লেখার অভ্যাস থাকে তাহলে ব্যবহার করতে পারেন মাইক্রোসফটের তৈরি ওয়ান নোট অ্যাপসটি। এখানে আপনি আপনার লেখা সংরক্ষণ করতে পারবেন সম্পূর্ণ বিনামূল্যে যা স্বয়ংক্রিয়ভাবে অনলাইনে সেভ হয়ে থাকে।

৯. ফটোম্যাথ

এটি বিজ্ঞান এবং গনিত শিক্ষার্থীদের জন্য বিশেষ উপযোগী। আপনার গানিতিক সমস্যা টি মোবাইলের ক্যামেরা দিয়ে স্ক্যান করুন এই অ্যাপস দিয়ে। ফলাফল পাবেন মুহূর্তেই।

১০. সলোলার্ন

আপনি যদি কোডিং শিখতে চান তাহলে এই অ্যাপসটি হবে আপনার জন্য উপযুক্ত। HTML5, C++, C, Javascript, PHP, CSS, Python, SQL  সহ আরো অনেক প্রোগ্রামিং ভাষা শিখতে পারেন খুব সহজে।

লেখকঃ রাসেল দেওয়ান

জুমজার্নালে প্রকাশিত লেখাসমূহে তথ্যমূলক ভুল-ভ্রান্তি থেকে যেতে পারে অথবা যেকোন লেখার সাথে আপনার ভিন্নমত থাকতে পারে। আপনার মতামত এবং সঠিক তথ্য দিয়ে আপনিও লিখুন অথবা লেখা পাঠান। লেখা পাঠাতে কিংবা যেকোন ধরনের প্রয়োজনে যোগাযোগ করুন - jumjournal@gmail.com এই ঠিকানায়।

আরও কিছু লেখা

Jumjournal

Administrator

Follow Jumjournal

Leave a Reply