icon

আদিবাসীদের ভাষা সম্পর্কে ১০টি আকর্ষণীয় তথ্য

Saptorshi Dewan

Last updated Mar 18th, 2020 icon 511

ভাষা মানব বৈচিত্র্যের অন্যতম শ্রেষ্ঠ নিদর্শন– যা চমৎকারভাবে প্রকাশ করে মানুষের পক্ষে কতটা ভিন্ন উপায়ে বিশ্বকে বুঝা, বর্ণনা করা এবং উপলদ্ধি করা সম্ভব।

১. মানুষের বাকশক্তি কথ্য শব্দে সীমাবদ্ধ থাকে না

বিশ্বজুড়ে আদিবাসীদের ৭০ ধরনের ভাষা রয়েছে যেগুলো শিষ দেওয়ার মাধ্যমে প্রকাশ করা যায়। এটি কোনো গানের সুরে শিষ দেওয়ার মতো না, এর অর্থ হচ্ছে শিষ দেওয়ার মাধ্যমে শব্দ এবং বাক্য প্রকাশ করা যা স্বাভাবিকভাবে কথা বলার মতোই।

২. আপেক্ষিকভাবে ইংরেজি একটি সাধারণ ভাষা

শেখার জন্য ইংরেজি খুব একটা কঠিন ভাষা নয়, এটি কেবল প্রায় ৪২ টি ভিন্ন ধ্বনি ব্যবহার করে। ǃXóõ, কালাহারি মরুভূমিতে “বুশম্যান” দ্বারা কথিত একটি ভাষা যা ১৬০ টিরও বেশি ধ্বনি দ্বারা ব্যবহৃত হয়। এতে ৫টি পৃথক “টিক টিক” শব্দ (Click Sounds) রয়েছে যা মূলত কেবল বুশম্যানদের ভাষাতেই পাওয়া যায়।

৩. সাধারণত আদিবাসী ভাষাগুলো সবচেয়ে জটিল এবং বিশেষায়িত হয়

পৃথিবীতে কোন মানুষ তার আদিম ভাষায় কথা বলেনা– এই ধরণের কোন কথা নেই। প্রত্যন্ত অঞ্চলে বাস করা মাত্র কয়েক শতাধিক আদিবাসী লোকের দ্বারা কথিত ভাষাগুলিতে অধিকতর স্বকীয় নিয়ম, ধ্বনি এবং শব্দভাণ্ডার রয়েছে, যেখানে ইংরেজি, স্প্যানিশ বা মান্ডারিন চাইনিজের মতো বিশ্বব্যাপী প্রচলিত ভাষাগুলো অধিকতর অনুমানযোগ্য ভাষারীতি অনুসরণ করে। যেহেতু এই ভাষাগুলো বৈশিষ্ট্যে অনন্য এবং সবচেয়ে বেশি ঝুঁকিপূর্ণ তাই (তর্কসাপেক্ষে) তাদের কাছ থেকেই আমাদের সবচেয়ে বেশি শেখার আছে।

কুয়া জনজাতির শিশুরা, বতসোয়ানার বুশম্যান, কালাহারি
© Forest Woodward / Survival, 2015

৪. ভাষা বিশেষায়িত জ্ঞানের গ্রন্থাগার

সাইবেরিয়ার ইভেনি জাতি (Eveny People) হচ্ছে বল্গাহরিণ পালক এবং তাদের প্রাত্যহিক জীবন ঐতিহ্যগতভাবে তাদের পালিত জন্তুগুলোর সাথে আবর্তিত। তাঁদের ভাষাতে ১৫০০টিরও বেশি শব্দ রয়েছে যা শুধু তাঁদের পালিত বল্গাহরিণের শরীরের অঙ্গপ্রত্যঙ্গ, রোগ, খাদ্যপ্রণালী এবং মেজাজ বর্ণনা করার জন্য বরাদ্দকৃত।

৫. এমন কিছু জিনিসের জন্য শব্দ রয়েছে যা আমরা কখনো ভাবিনি

আপনি কি কখনও কাউকে দেখার জন্য এত উত্তেজিত হয়েছেন যে তারা পৌঁছেছে কিনা তা দেখার জন্য আপনি  ঘন ঘন বাইরে যেতে থাকেন? ইনিয়ুটদের (Inuit People) ইনাকটিটাত (Inuktitut) ভাষায় এর জন্য একটি শব্দ রয়েছে: “IKtsuarpok”, যা উচ্চারিত হয় ঈক্ট-সু-আ-পক।

৬. অনেকগুলি ভাষা বিভিন্ন উপায়ে কার্যকরী পার্থক্য তৈরি করে যা ইংরেজিতে নেই

“আমরা” এই শব্দটির জন্য গুয়ারানি ভাষায় দুটি পৃথক শব্দ রয়েছে। একটি “আমরা” এমন লোকদের অন্তর্ভুক্ত করে যাদের সাথে আপনি কথা বলছেন, কিছুটা “আমি এবং আপনি” বলার মতো। অন্যটি, আপনি অনুপস্থিত একদল লোক সম্পর্কে কথা বলার জন্য ব্যবহার করেন, যেমন “আমি এবং তারা”।

৭. সময় সম্পর্কে চিন্তা করার জন্য কিছু ভিন্নরকম উপায় রয়েছে

আন্ডিজের আয়মারাদের (Aymara) মতে ভবিষ্যত আপনার পিছনে এবং অতীত সামনে রয়েছে। আপনি অতীতকে দেখতে পারেন, তবে ভবিষ্যতকে দেখতে পারবেন না। আয়মারা ভাষায় অতীত শব্দের আক্ষরিক অর্থ চোখ, দর্শন বা সম্মুখ এবং ভবিষ্যত শব্দের অর্থ পশ্চাদ কিংবা পিছনে।

আদিবাসী শিশু, অস্ট্রেলিয়া
© Sinem Saban/Survival

৮. আপনি যে ভাষায় কথা বলছেন তা আপনাকে কীভাবে বিশ্বের অভিজ্ঞতা দেয় তার প্রমাণ রয়েছে

অস্ট্রেলিয়ার গুগু ইমিথির (Guugu Ymithirr) জাতির লোকেরা ঐতিহ্যগতভাবে দিকনির্দেশনার জন্য বাম এবং ডান দিক ব্যবহার করত না। কেবল উত্তর, দক্ষিণ, পূর্ব এবং পশ্চিমকে ব্যবহার করতো। তাঁরা সহজাতভাবে কোন জায়গায় দাঁড়িয়ে সে জায়গার প্রেক্ষিতে প্রতিটি কম্পাস পয়েন্ট সঠিকভাবে ব্যবহার করতে সক্ষম।

৯. বিশ্বের প্রায় অর্ধেক ভাষার কোনো লিখিত রূপ নেই

অলিখিত ভাষা মৌখিক রীতিতে; গল্পে, গানে, কবিতায় এবং আচারবিধিতে সমৃদ্ধ যা প্রজন্মের পর প্রজন্মের মধ্য দিয়ে ছড়ায় এবং সময়ের পরিক্রমায় লক্ষণীয়ভাবে ধারাবাহিক এবং নির্ভরযোগ্য হিসেবে থেকে যায়। বিজ্ঞানীরা হাজার হাজার বছর পূর্বে ঘটে যাওয়া ঘটনার প্রমাণ কয়েকশ প্রজন্ম ধরে পুনঃবলা এবং চমৎকারভাবে সংরক্ষিত আদিবাসী গল্পগুলিতে খুঁজে পাচ্ছেন। অতএব, লেখ্য রূপের অভাব বলতে সংস্কৃতি বা জ্ঞানের অভাব বোঝায় না।

১০. বিশ্বের প্রায় অর্ধেক ভাষাই বিপন্নতার মুখে

পৃথিবীতে প্রায় ৭০০০ কথ্য ভাষা রয়েছে এবং যাদের মধ্যে প্রায় ৩০০০ ভাষা বিপন্ন বলে বিবেচিত। অন্যদিকে, শুধুমাত্র ২৩ টি ভাষায় বিশ্বের মোট জনসংখ্যার প্রায় অর্ধেক কথা বলে। যদি লেখ্য রূপহীন কোন ভাষায় আর কথা বলা না হয় তবে– একটি জাতির সমষ্টিগত ইতিহাস, জ্ঞান, পৌরাণিক কাহিনী এবং বিমূর্ত কল্পনাগুলোর চিরতরে মৃত্যু হয়।

ভাষার মৃত্যুর মূল কারণ হল বাচ্চারা যখন তাঁদের পিতামাতার ভাষায় আর কথা বলতে পায় না। কখনও কখনও বাচ্চাদেরকে তাঁদের পরিবারের ভাষা বলতে লজ্জা বোধ করানো হয়।

 লেখিকা: Saptorshi Dewan

জুমজার্নালে প্রকাশিত লেখাসমূহে তথ্যমূলক ভুল-ভ্রান্তি থেকে যেতে পারে অথবা যেকোন লেখার সাথে আপনার ভিন্নমত থাকতে পারে। আপনার মতামত এবং সঠিক তথ্য দিয়ে আপনিও লিখুন অথবা লেখা পাঠান। লেখা পাঠাতে কিংবা যেকোন ধরনের প্রয়োজনে যোগাযোগ করুন - jumjournal@gmail.com এই ঠিকানায়।

আরও কিছু লেখা

Saptorshi Dewan

Editor
She is pursuing her study at the department of Women and Gender Studies, University of Dhaka.

Follow Saptorshi Dewan

Leave a Reply